দুষ্টুমি বোঝে একমাত্র কুকুর

আমিষ ডেস্ক ॥ 

প্রভুভক্ত পোষা প্রাণীর মধ্যে কুকুরের বেশ সুনাম রয়েছে। পাশাপাশি কুকুর নিরাপত্তাও দেয়। তবে কুকুর যে কেবল নিরাপত্তা দেয় তা কিন্তু নয়। সে যেমন দুষ্টুমি করতে পারে, একই সাথে দুষ্টুমি বুঝতেও পারে। সম্প্রতি এক গবেষণায় এ তথ্য জানা গেছে। জার্মানির ইউনিভার্সিটি অব গটিংজেনের একদল মনোবিজ্ঞানী গবেষণাটি করেছেন। গবেষকেরা ৫১টি কুকুরের ওপর গবেষণা চালিয়েছেন। এতে দেখা গেছে, কুকুর মানুষের ইচ্ছা কিংবা অনিচ্ছাকৃত কাজ পর্যবেক্ষণ করে। 
গবেষণায় মনোবিজ্ঞানীরা পর্যবেক্ষণ করেছেন, কুকুর একেক সময় একেক আচরণ করছে। যেমন মালিক যদি ইচ্ছা করে খাবার দেয়া বন্ধ করেন, তাহলে লেজ নাড়া বন্ধ করে শুয়ে থাকতে দেখা গেছে তাদের। গবেষণা কাজের জন্য বিভিন্ন বয়স ও নানা প্রজাতির কুকুরকে তাদের মালিক থেকে আলাদা একটি কক্ষে রাখা হয়। এরপর কুকুরের সামনে একটি স্বচ্ছ প্লাস্টিকের দেয়াল স্থাপন করা হয়। দেয়ালের ও পাশ থেকে কুকুরকে খাবার দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। 
গবেষণার অংশ হিসেবে বিজ্ঞানীরা দেয়ালের অপর পাশ থেকে খাবার দিতে গিয়ে দ্রুত তা সরিয়ে হেসে ওঠেন। এরপর কুকুরের নাগালের বাইরে মেঝেতে খাবার রাখেন। আবার এই গবেষণার অংশ হিসেবে বিজ্ঞানীরা ভুল করার ভান করেন। মেঝেতে খাবার ফেলে দিয়ে আঁতকে ওঠার মতো আওয়াজ করেন। দেখা গেছে, ইচ্ছা করে গবেষকেরা যখন খাবার ফিরিয়ে নিচ্ছিলেন, তখন কুকুরগুলো দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করেছে। 
এমনকি কুকুর যখন বুঝতে পেরেছে, ইচ্ছা করেই তাদের খাবার ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে, তখন প্রাণীগুলো বসে বা শুয়ে পড়েছে এবং লেজ নাড়ানো বন্ধ করে দিয়েছে। কিন্তু কুকুর যখন বুঝতে পেরেছে, আচমকা কিংবা ভুলবশত তাকে খাবার দেয়া হয়নি, তখন সে উঠে দাঁড়িয়ে লেজ নাড়িয়েছে। 
গবেষকরা উপসংহার টেনেছেন, ‘আমাদের গবেষণায় মানুষের পদক্ষেপের কারণে কুকুরকে ভিন্ন ভিন্ন আচরণ করতে দেখা গেছে। এর মানে হলো, মানুষ কোনো কাজটা ইচ্ছাকৃতভাবে এবং কোনটা অনিচ্ছাকৃতভাবে করছে তা কুকুর বুঝতে পারে।’ 
 

You May Also Like