খামারের মুরগিতে হরেকরকম মুখরোচক খাবার ম্যানু

ঢাকা থেকে সংবাদদাতা ॥ 

মন্ত্রীসহ উপস্থিত সবার চোখ বিস্ময়ে ছানাবড়া। খামারের মুরগি দিয়ে এত্ত খাবারের আইটেমও রান্না হতে পারে! মন্ত্রী আগ্রহভরে জিজ্ঞাসা করলেন, চিকেন আচারিটা কী? এটা কি আচার দিয়ে রান্না করা হয়েছে? পাশে থাকা স্মার্ট সেফ এগিয়ে এসে মন্ত্রীকে বিষয়টি বুঝিয়ে বলতে গিয়ে জানালেন, মোগল ও সুলতানি আমলের রাজা বাদশাহ থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের খ্যাতনামা নানা নামের নানা স্বাদের মুখরোচক ডিস এখানে সাজিয়ে রাখা হয়েছে। 
তিনি মন্ত্রীকে জানাতে গিয়ে খামারের মুরগি দিয়ে রান্না করা আইটেমগুলোর নাম বলতে শুরু করলেন। তাতে খাবারগুলোর যেসব নাম জানা গেল তার মধ্যে রয়েছে- মোগল চিকেন কারি, সুলতানি চিকেন, চিকেন আচারি, পার্বত্য ব্যাম্বো চিকেন, চিকেন কালাভুনা, চিকেন দহিকারি, চিকেন বাটার মাসালা, চিকেন রগন জুস, চিকেন মালাইকারি, চিকেন সাতকরা, চিকেন দম দুরস্ত, চিকেন চুই ঝাল, চিকেন টিক্কা, চিকেন রোস্ট, চিকেন সরুয়া, চিকেন ঝাল ফ্রাই, চিকেন নারিকেল কারি, চিকেন হারিয়ালি কারি এবং চিকেন আলুর দম। এ সময় মন্ত্রীর পাশে দাঁড়ানো পোলট্রি শিল্পের সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ী ও সিনিয়র কয়েকজন গণমাধ্যমব্যক্তিত্ব মোবাইল ফোনে বিভিন্ন আইটেমের খাবারের ছবি তুলতে লাগলেন। 
গত রোববার (২১ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে পোলট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান শেষে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম আমন্ত্রকদের অনুরোধে খামারের মুরগির তৈরি বিভিন্ন স্বাদের খাবারের ম্যানু দেখতে গেলে এমনই এক দৃশ্যের অবতারণা হয়। 
এর আগে পোলট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ অনুষ্ঠানে জাতীয় ও স্থানীয় সংবাদপত্রের নয়জন, টেলিভিশনের ছয়জন, অনলাইন ও ম্যাগাজিনের চারজনসহ মোট ১৯ জন প্রতিবেদককে বিজয়ী হিসেবে পুরস্কার দেয়া হয়। এসিআই এনিমেল হেলথের সহযোগিতায় পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড চতুর্থবারের মতো আয়োজন করে বাংলাদেশ পোলট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি)। 
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শ ম রেজাউল করিমের বক্তৃতা শেষে উপস্থাপিকা উপস্থিত সবার জন্য সিরডাপ মিলনায়তনের তৃতীয় তলায় খামারের মুরগি দিয়ে রান্না করা বাহারি আইটেমের প্রদর্শনী দেখতে ও অতঃপর দুপুরের খাবার খেতে যেতে আহ্বান জানান। 
মন্ত্রী, সচিবসহ অন্যান্য সবাই তৃতীয় তলায় পৌঁছে হরেক রকম ম্যানু দেখে কিছুটা হতবাকই হন। উপস্থিত সবাই কেবল মুখরোচক এ ম্যানুগুলো দেখেই ফেরেননি, প্রতিটি ম্যানুর স্বাদও কিছুটা আস্বাদন করেছেন। 
 

You May Also Like