দিল্লির পথে হাজারো ট্রাক্টর মুম্বাইয়ে লাখো মানুষের সমাবেশ, যুক্তরাষ্ট্রেও বিশাল কার র‌্যালি

আমিষ ডেস্ক ॥ 

ভারতের উত্তরাঞ্চলের হাজার হাজার কৃষক তাদের ট্রাক্টর নিয়ে দিল্লির পথ ধরেছেন। আজ তারা দিল্লি অবরোধ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। ভারতের বিজেপি সরকার প্রণীত নতুন তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এ কর্মসূচি নিয়েছেন তারা। তাদের বক্তব্য, ফসল উৎপাদনে বৃহৎ পুঁজির বিনিয়োগের দরজা খুলে দিলেও কৃষকদের হাত থেকে কৃষি ব্যবস্থার সব শক্তি কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। এসব আইন বাতিল করতে হবে। টানা চার মাসের এই আন্দোলন ক্রমেই বড় হচ্ছে। একই দাবিতে গত সোমবার মুম্বাইয়ে লাখো মানুষ সমাবেশ করেছে। আন্দোলনের ঢেউ সুদূর যুক্তরাষ্ট্র পর্যন্ত গিয়ে লেগেছে। দেশটির ডেট্রইট শহরে কৃষকদের সমর্থনে শত শত কার নিয়ে র‌্যালি করেছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ভারতীয়রা। খবর আলজাজিরা, আনন্দবাজার ও এনডিটিভির। 
২৬ জানুয়ারি ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস। দিবসটি উদযাপনে বর্ণাঢ্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছে কেন্দ্রীয় ও সব রাজ্য সরকার। বিশেষ করে রাজধানী নয়াদিল্লিতে বর্ণাঢ্য সেনা কুচকাওয়াজের আয়োজন করা হয়। এতে প্রতিবেশী দেশের সেনারাও অংশ নিয়েছেন। একই দিন দিল্লিতে ট্রাক্টর র‌্যালি করার ঘোষণা দিয়েছেন কৃষকরা। তারা দিল্লি পুলিশের অনুমতিও পেয়েছেন। তবে ট্রাক্টর র‌্যালির জন্য সড়ক নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। 
প্রায় চার মাস ধরে ভারতের কৃষকরা নতুন তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রাজপথে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। কৃষকদের স্বার্থবিরোধী এই আইন বাতিলের দাবি জোরদার করতে ইতোমধ্যে কয়েকজন কৃষক আত্মাহুতি দিয়েছেন। তবে এখনও নরেন্দ্র মোদির কেন্দ্রীয় সরকার আইন বাতিল করেনি। কিছু সংশোধন আনার বিষয়ে কৃষকদের প্রস্তাব দিয়েছে। তবে তা প্রত্যাখ্যান করে করপোরেট ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষার কৃষি আইন পুরোপুরি বাতিলের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। 
উত্তর ভারতের দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশসহ বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকরা তাদের চাষের উপকরণ ট্রাক্টর নিয়ে দিল্লির পথে রওনা দিয়েছেন। এই ট্রাক্টর গ্রোতের মোহনা নয়াদিল্লি। কৃষি আইন বাতিলের দাবি আদায় করে ঘরে ফেরার ঘোষণা দিয়ে খাওয়া-ঘুমের কষ্ট নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন তারা। 
কৃষক একতা মোর্চার টুইটার বার্তায় তুলে দেওয়া হয়েছে আলজাজিরার খবরে। শান্তিপূর্ণ ট্রাক্টর সমাবেশের ডাক দিয়ে তাতে বলা হয়েছে, 'শান্তি বজায় রেখে ট্রাক্টর র‌্যালি করার বিষয়ে আমাদের নেতারা অঙ্গীকারবদ্ধ। এই অঙ্গীকার রক্ষা করা আমাদের সবার দায়িত্ব।' 
ট্রাক্টর নিয়ে দিল্লির পথ ধরা হাজারো কৃষকের মধ্যে এক বিক্ষোভকারী পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে আলজাজিরাকে বলেছেন, 'আমরা মোদিকে এমন শিক্ষা দিতে চাই, যা তিনি কখনও ভুলবেন না।' 
ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়ে-৪৪ ধরে সারি সারি ট্রাক্টর দিল্লির পথে রয়েছে। পথের মাঝে বিরতি নেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা। থাকা ও খাওয়ার অস্থায়ী ব্যবস্থা করা হয়েছে। 
কৃষকরা দিল্লিতে ৬০ হাজার ট্রাক্টর নিয়ে র‌্যালি করার ঘোষণা দিলেও দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, ১২ হাজার ট্রাক্টর নিয়ে র‌্যালি করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তারা দিল্লির ১০০ কিলোমিটার পথ পরিভ্রমণ করতে পারবে। 
অন্যদিকে কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে গত ২৫ জানুয়ারি সোমবার মুম্বাইয়ের আজাদ ময়দানে লাখো মানুষ সমাবেশ করেছে। সেখানে কৃষক সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মহারাষ্ট্রে প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল এনসিপির প্রধান শারদ পাওয়ার। সেখানে তিনি মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিংহ কোশিয়ারিকে আক্রমণ করে বলেন, 'কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে দেখা করার সময় হয় রাজ্যপালের, কৃষকদের সঙ্গে নয়।' 
গত সেপ্টেম্বরে অভিনেত্রী কঙ্গনা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ করেন, সুশান্ত সিংহ রাজপুতের 'খুনের ঘটনা' নিয়ে সরব হওয়ায় তাকে টার্গেট করার চেষ্টা করছে মহারাষ্ট্র সরকার। 
আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনগুলোর যৌথ মঞ্চ 'সম্মুখ ক্ষেতকারী কামগর মোর্চা' রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে কৃষি বিল প্রত্যাহারের দাবিতে স্মারকলিপি দিতে চেয়েছিল। তবে রাজ্যপাল এখন মুম্বাইয়ে নেই। 
এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ডেট্রইট শহরে ভারতীয় কৃষকদের সমর্থনে কার র‌্যালির সংগঠক আমানদীপ ঝাঝ জানান, ইন্ডিয়ানা, ওহাইও, ইলিয়নসহ মধ্যাঞ্চলীয় রাজ্যগুলো থেকে ভারতের প্রবাসীরা র‌্যালিতে যোগ দিয়েছেন। সম্প্রতি ক্যানটন ও ট্রয় শহরেও কৃষি আইন বাতিলের সমর্থনে সমাবেশ হয়েছে। 
 

You May Also Like