গবাদিপশুকে প্রয়োগ করা হচ্ছে মেয়াদোত্তীর্ণ সরকারী ভ্যাকসিন

নীলফামারী থেকে সংবাদদাতা ॥ 

নীলফামারী সৈয়দপুর উপজেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয়ের দুই মাঠকর্মীর বিরুদ্ধে গবাদিপশুকে মেয়াদোত্তীর্ণ ভ্যাকসিন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত ২১ জুলাই মঙ্গলবার উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের অসুরখাই এলাকায় এ ঘটনায় ওই দুই মাঠকর্মীকে আটক করে রাখেন গবাদিপশুর মালিকেরা। পরে উপজেলা প্রশাসন ও প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। জানা গেছে, ঐ দিন মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ইউনিয়ন ভ্যাকসিনেটর সাখাওয়াৎ হোসেন এবং ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পের মাঠকর্মী এলএসপি নাজমুল নাহার উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের অসুরখাই গ্রামে ভ্যাকসিন দিতে যান। অসুরখাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এলাকার গরু-ছাগলকে ভ্যাকসিন প্রয়োগের পরপরই বাছুর গরু ছটফট, লাফালাফি করাসহ ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ে। এসময় সেখানে উপস্থিত লোকজন প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের মাঠকর্মী সাখাওয়াৎ হোসেনের নিয়ে আসা ছয়টি ভ্যাকসিনের বোতল হাতে নিয়ে দেখতে পান সবগুলোরই মেয়াদোর্ত্তীণ। এ অবস্থায় গরু-ছাগলের মালিকরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন। তারা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের দুই মাঠকর্মীকে আটক করে রাখেন। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসিম আহমেদ এবং উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রাশেদুল হককে বিষয়টি অবহিত করে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এ বিষয়ে প্রাি সম্পদ দপ্তরের ইউনিয়ন ভ্যাকসিনেটর সাখাওয়াৎ হোসেন বলেন, আমকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে ভ্যাকসিনগুলো সরবরাহ করা হয়েছে। তিনি উৎপাদন ও মেয়াদত্তীর্ণের তারিখ না দেখে সেসব নিয়ে এসে দিচ্ছিলেন। তবে গরু-ছাগলকে দেয়ার আগে ভ্যাকসিনের বোতলের লেভেলে লেখা উৎপাদন ও মেয়াদোর্ত্তীণ তারিখ দেখা উচিত ছিল আমার। 
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রাশেদুল হক বলেন, ওই ইউনিয়ন ভ্যাকসিনেটরকে অফিস থেকে কোন ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হয়নি। গত দেড় মাস আগেই অফিসে সরবরাহকৃত ভ্যাকসিন শেষ হয়ে গেছে। আমার অফিসের স্টোরে কোন ভ্যাকসিন নেই। ভ্যাকসিনের জন্য আমি চাহিদা দিয়েছি। তবে উদ্ধারকৃত ভ্যাকসিনগুলো সরকারি। ওই মাঠকর্মী সেসব মেয়াদোর্ত্তীণ ভ্যাকসিন কোথায় পেল কিভাবে পেল তা তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে সে দোষী সাব্যস্ত হলে তার বিরুদ্ধে দাপ্তরিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 
উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসিম আহমেদ বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে বলা হয়েছে। 
 

You May Also Like